Main Menu

ফিরিয়ে না নেয়া পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেবে বাংলাদেশ : শেখ হাসিনা

ওয়েব ডেস্ক-
কেরাণীগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি দেখতে আজ মঙ্গলবার কক্সবাজারের উখিয়ায় যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
রাখাইনে সহিংস পরিস্থিতি থেকে প্রাণভয়ে পালিয়ে যে রোহিঙ্গা মুসলিমরা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে তাদের ফিরিয়ে নেয়ার জন্য মিয়ানমারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

কক্সবাজারের উখিয়ায় একটি শরণার্থী শিবির পরিদর্শনকালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, নির্দোষ সাধারণ মানুষগুলো যে ধরনের ভোগান্তি ও কষ্টের মধ্যে পড়েছে সে পরিস্থিতি যেন মানবিকভাবে তারা বিবেচনা করে।
রাখাইনে সাম্প্রতিক সহিংসতায় তিন লাখ সত্তর হাজার রোহিঙ্গা সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।
রোহিঙ্গাদের ভাষ্য অনুযায়ী মিয়ানমারের সেনাবাহিনী তাদের ওপর অত্যাচার, নির্যাতন চালাচ্ছে, হত্যা, ধর্ষণের অভিযোগও করছে তারা।
তবে মিয়ানমার এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলছে, ‘রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী’দের বিরুদ্ধে তাদের সেনাবাহিনী লড়াই করছে।
বাংলাদেশে এসে যেসব রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিচ্ছেন তাদের অনেকেই আহত, চিকিৎসা নিচ্ছেন বিভিন্ন হাসপাতালে। এমনকি আশ্রয় শিবিরগুলোতেও সাহায্য সংস্থাগুলো সবসময় কাজ করে যাচ্ছে।
আজ কুতুপালং শরণার্থী শিবির পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বিবিসিকে তিনি বলেন, “আমার ব্যক্তিগত বার্তা খুবই স্পষ্ট। মানবতার দৃষ্টিভঙ্গিতে তাদের এ পরিস্থিতি বিবেচনা করতে হবে”।
“এই মানুষগুলো নির্দোষ, এসব শিশু, নারী নির্মম কষ্টের মধ্যে পড়েছে। এ রোহিঙ্গা মুসলিমরা মিয়ানমারের নাগরিক। শত শত বছর ধরে তারা সেখানে বসবাস করছে। কিভাবে তারা তাদের নিজেদের নাগরিককে অস্বীকার করে?” বলেন প্রধানমন্ত্রী।
বিবিসির সাথে আলাপকালে তিনি আরো বলেন, “মিয়ানমার সরকারের উচিত ধৈর্য নিয়ে আন্তরিকতার সাথে এ পরিস্থিতি মোকাবেলা করা। সাধারণ মানুষের ওপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বা সেনাবাহিনীর আক্রমণ করতে দেয়া তাদের উচিত হয়নি। “।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সেসব মানুষের এমন পরিস্থিতিতে তাঁর দেশ রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছে এবং মিয়ানমার তাদের ফিরিয়ে না নেয়া পর্যন্ত বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেবে।

© 2017, কেরাণীগঞ্জ টুয়েন্টিফোর. <<- প্রথম পাতায় ফিরতে ক্লিক করুন http://www.keranigonj24.com

Facebook Comments





Leave a Reply