Main Menu

প্রায় দুই বছর যাবত ট্যাংকের পানিতে ময়লা রোগ জীবানূর আক্রমন থাকলেও নেই পরিস্কার ও পরিবর্তনের উদ্যোগ

কেরাণীগঞ্জ স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র : পানীবাহিত রোগ জীবানূর অভয়াশ্রম

মুহাম্মাদ আদিল রহমান-
কেরাণীগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম।

নেতাকর্মী অথবা প্রশাসনের লোক এই হাসপাতালে আসে এটা সেটা বলে নিজের ক্ষমতার দাপট বোঝাতে,রোগীদের জন্য হুমকি স্বরুপ বিশুদ্ধ পানীর সংকট নিরসনে সাহায্য করার মত মানুষের খুব অভাবে ভূগছি আমরা

কেরাণীগঞ্জ উপজেলার একমাত্র সরকারী স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র
কেরাণীগঞ্জ স্বাস্থ্যসেবা কমপ্লেক্স (মালঞ্চা হাসপাতালের) সেবার চিত্র যেন দিন দিন সেবার বিপরীতে রোগ জিবানূ দ্বারা রোগীকে আক্রান্ত করতেই বেশী আগ্রহী,যার মূলে রয়েছে বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট।

প্রায় দুই বছর যাবত অত্র হাসপাতালের পানির ট্যাংক ও সংযোগ পাইপগুলো অতিরিক্ত ময়লা আবর্জনায় গুলিয়ে গেলে, হাসপাতালের ডাক্টার-কর্মচারীরা ট্যাংকির পানি রোগীদের খাবার কাজে সরবরাহ বন্ধ করে দেন।

ডাক্টার ও কর্মচারীগণ নিজস্ব খাবার পানি পাশবর্তি বাড়ীর টিউবয়েল থেকে সংগ্রহ করে থাকেন,
মানবতায় সেবায় নিয়োজিত হাসপাতাল কর্মীরা রোগীদের নিরাপত্তার স্বার্থে নিজেদের পাশাপাশি আবাসিক রোগীদের খাবার পানীটুকুও নিজেরাই কষ্ট করে পাশবর্তী বাড়ীর টিউবয়েল থেকেই এনে দেন।

পাশাপাশি জরাজীর্ণ ট্যাংকের পানীও আছে তবে তা খাবার জন্য নয়, পরিস্কার পরিছন্নতার কাজে ব্যবহার করার জন্য। যা কিনা কয়লা দিয়ে ময়লা পরিস্কারের মতই কৌতুকময়।

কেরাণীগঞ্জ টুয়েন্টিফোরের প্রশ্নের জবাবে এক হাসপাতাল কর্মী নাম প্রকাশের ব্যপারটা গোপন রেখে জানান যে,বর্তমানে হাসপাতালের ট্যাংক থেকে সাপ্লাই করা পানিতে যে পরিমান জীবানূ আছে ডায়রিয়া কলেরা সহ পানী বাহিত রোগ দ্বারা একজন স্বাভাবিক মানুষকে আক্রান্ত করে বিছানামূখী করার জন্য যথেষ্ট।

তিনি আরোও বলেন-হাসপাতালে সাংবাদিক পুলিশ দলীয় নেতা কর্মী অনেকেই আসেন খোঁজ খবর নিতে, যখনই তাদের কাছে বিশুদ্ধ খাবার পানীর এই ভয়াবহ সংকটের কথা বলি তারা সবাই এটা করবে সেটা করবে বলে চলে যায় কিন্তু এরপর আর না দেখি প্রতিকার না দেখি তাদের মূখ।
সবাই আসে এটা সেটা বলে নিজের ক্ষমতার দাপট বোঝাতে,রোগীদের জন্য এমন হুমকি স্বরুপ বিশুদ্ধ পানীর সংকট নিরসনে সাহায্য করার মত মানুষের খুব অভাবে ভূগছি আমরা।

সরকারী হাসপাতালে বিশুদ্ধ খাবার পানী সংকটের মত ভয়াবহ পরিস্থিতি মোকাবেলা করে প্রায় দুই বছর অতিবাহিত করতে চলেছে কেরাণীগঞ্জ স্বাস্থ্য সেবা কমপ্লেক্স,
ধনীদের আদরের সোনামনিরা তো অসুস্থ হলেই শহরের নামী দামী হাসপাতালের বেডে শুয়ে সেবা পান নামকরা ডাক্টারদের কোমল হাতের স্পর্শে।
ভাগ্যহত দরিদ্র দূঃখিনী মায়ের অতিকষ্ঠে লালীত খিটখিটে শুকনো বুকের মানিক -কে
সুস্থ্য রাখার তরে নিবেদীত প্রান কেউ কি নেই?

 

© 2017, Presslist24.com. <<- প্রথম পাতায় ফিরতে ক্লিক করুন http://www.keranigonj24.com

Facebook Comments





Leave a Reply